Main Menu

Abdullah Mahmud

 

শাইখ আব্দুর রহমান আল-হুজাইফি -এর ১৯৯৮ সালের ঐতিহাসিক আগুনঝরা খুতবা

ইসলাম ইহুদ-নাসারাদের ইসলামের অধীর থেকে তাদের নিজ ধর্ম মতে চলার স্বীকৃতি দান করে-যদি তারা অর্থও নিরাপত্তামূলক বিষয়াদিতে ইসলামের আহকাম মেনে চলে। অর্থাৎ অর্থ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থায় হস্তক্ষেপ বা ষড়যন্ত্র করলে সে স্বীকৃতি বহাল থাকবে না। ইসলাম তাদেরকে কখনই ইসলাম ধর্ম গ্রহণে বাধ্য করে না। আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন, ধর্মীয় বিষয়ে কোনো জবরদস্তি নেই, নিশ্চয় হেদায়েতের পথ গোমরাহি পথ থেকে স্পষ্ট হয়ে গেছে। সুরা বাকারা : ২৫৬ তবে ইসলাম এটা পরিস্কারভাবে বলে যে, তাদের মতাদর্শ অবশ্যই বাতিল ও অগ্রাহ্য। তা সত্ত্বেও তাদেরকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণে বাধ্য করা হয় না। কারণ, ইসলামRead More


শাইখ আব্দুর রহমান আল-হুজাইফি -এর ১৯৯৮ সালের ঐতিহাসিক আগুনঝরা খুতবা

[ শাইখ আব্দুর রহমান আল-হুজাইফি। মসজিদে নববির সম্মানিত খতিব। আকষ্মিকভাবে ১৯৯৮ সালে ঈদুল আযহার আগের জুমায় জাজিরাতুল আরবে অবস্থানকারী বৃটিশ-মার্কিন-ফরাসী সৈন্যদের বিরুদ্ধে সউদি হুকুমতের প্রথাবিরোধী আগুনঝরা বক্তৃতা দিলেন। বিশেষ করে শিয়াদের বিরুদ্ধে তার অনড় অবস্থান, তাদের দৌরাত্ম স্পষ্ট হয়ে উঠেছিল তার বয়ানে। রাগে ক্রোধে ফেটে পড়ছিলেন প্রতিটি শব্দের উচ্চারণে। ভাষণের প্রতিটি শব্দই যেন বুক ঝাঁঝরা করা বারুদ। বিষ্ময়ের ব্যপার হলো, ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্টের সরকারী সফর চলাকালীন সময়ে কেন তিনি হঠাৎ এতটা কঠোর হুঁশিয়ারি করলেন শিয়াদের ব্যাপারে? শিয়াদের অভিহিত করলেন ইহুদি-খৃষ্টানদের চেয়েও আরো জঘন্য বলে। অথচ সৌদি সরকারের রাজকীয় মেহমান হিসেবেRead More


ভয়াবহ বিপদ, দুরুদুরু বক্ষে আসামের মুসলিমরা

“আমরা ৩০ জুলাইয়ের জন্য দুরুদুরু বক্ষে অপেক্ষা করছি। শুধু আমরা অসমীয়া বাঙালিরা নই, অন্য অনেক গোষ্ঠীর মানুষই অপেক্ষা করে আছে ওই দিনটার জন্য।” আগামী সোমবার প্রকাশিত হবে জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর চূড়ান্ত খসড়া – যা নিয়ে আসামের কয়েক লক্ষ বাংলাভাষী হিন্দু-মুসলমান আশঙ্কায় আছেন যে তাদের নাম ওই তালিকায় থাকবে কিনা। বরাক উপত্যকায় শিলচর শহরের বাসিন্দা এবং আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি তপোধীর ভট্টাচার্য বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন। তার আশঙ্কার কথা। তার মতোই আগামী সোমবার ৩০ জুলাইয়ের জন্য অপেক্ষা করছেন রাজ্যের একেবারে অন্য প্রান্তে, বাকসা জেলার শালবাড়ির বাসিন্দা, ছাত্র নেতা ইব্রাহিম আলিও অপেক্ষায় আছেনRead More


আল্লাহর ওয়াস্তে ফিরে আসুন | হযরত মাওলানা ইউসুফ লুধিয়ানভী

আল্লাহ তাআলা কোনো সম্প্রদায়ের উপর হঠাৎ করে আযাব নাযিল করেন না। বিভিন্নভাবে প্রথমত বান্দাকে সতর্ক করেন। এরপরও যদি বান্দা গাফলতের ঘুম থেকে জাগ্রত না হয় তখন আসমান থেকে ভয়াবহরূপে নেমে আসে আল্লাহ্র আযাব। তখন আর কিছু করার থাকে না। জেগে উঠলেও কোনো লাভ হয় না। দুনিয়াতে যত মসিবত আছে তার সবকিছুই আমাদের বদ আমলীর ফল, আল্লাহ তাআলার পক্ষ থেকে আসমানী সতর্কবার্তা। পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হয়েছে- وَ مَاۤ اَصَابَكُمْ مِّنْ مُّصِیْبَةٍ فَبِمَا كَسَبَتْ اَیْدِیْكُمْ وَ یَعْفُوْا عَنْ كَثِیْرٍؕ. যে বিপদ তোমাদেরকে স্পর্শ করে তা তোমাদের কৃতকর্মের ফল এবং আল্লাহ (তোমাদের) অনেকRead More


সিরিয়ায় ইসরাইলি হামলা

মধ্যপ্রাচ্যে আগ্রাসন জোরদার করেছে ইসরায়েল। গত কয়েকদিনে ফিলিস্তিনে হামলার পর এবার সিরিয়ার মধ্যাঞ্চলীয় হামা প্রদেশের একটি সেনা অবস্থানে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এ খবর প্রচার করা হয়েছে। তবে খবরে এ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেয়া হয়নি। শুধু বলা হয়েছে- রোববার সন্ধ্যায় ইসরায়েল মাসইয়াফ শহরে হামলা চালায় এবং এতে বস্তুগত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সিরীয় সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানাও এ খবর নিশ্চিত করেছে। সেনাসূত্রে জানা গেছে, দারা ও কুনেইত্রা প্রদেশে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর পতনের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্যই ইসরায়েলি সেনারা এ হামলা চালিয়েছে। এদিকে, ব্রিটেনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরিRead More


মুরসিকে বিদেশে ‘রাজকীয় জীবনের’ প্রস্তাব সিসির

মিসরের প্রথম গণতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট কারাবন্দি মোহাম্মদ মুরসিকে এক ‘রাজকীয় প্রস্তাব’ দিয়েছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি। প্রস্তাবটি হচ্ছে, মুরসি যদি পরিবারসহ মিসর ছাড়েন, তাহলে বিদেশে তাকে সুখ ও আরাম-আয়েশের জীবন উপহার দেয়া হবে। কিন্তু সিসির এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন মুরসি। জবাবে তিনি বলেছেন, যারা মিসরকে ধ্বংস এবং জনগণের মানবাধিকার হরণের পরিকল্পনা করছে মিসরের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ তাদের হাতে ছেড়ে দিয়ে কোথাও যাবেন না তিনি। মিসরের আপিল আদালতের এক শীর্ষ কর্মকর্তার বরাতে বুধবার মিডল ইস্ট মনিটরে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে। মিসরের আপিল আদালতের আইনি পরামর্শক ও মুরসি সরকারের বিচারমন্ত্রীRead More


নতুন মন্ত্রিসভায় অন্য দলের সদস্যও থাকবে : এরদোগান

তুরস্কের নতুন নির্বাহী প্রেসিডেন্ট পদ্ধতির প্রথম মন্ত্রিসভায় ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (একেপি) সদস্য ছাড়াও অন্য পার্টির সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত হবে বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। সোমবার প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল আদেশ জারি করার মাধ্যমে সরকার গঠন করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন। শুক্রবার আঙ্কারায় প্রাদেশিক প্রধানদের সভায় এরদোগান বলেন, ‘আমাদের সংগঠনসমূহ, পৌরসভা ও প্রাদেশিক সংগঠনসমূহ এবং মন্ত্রীরা আগের মতই একই হবে না। নতুন মন্ত্রিসভায় আমরা একে পার্টির সদস্যদের বাইরে অন্য দলের সদস্যদেরও অন্তর্ভুক্ত করব।’ ৯ জুলাই তার শপথ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুর্কি রাজনীতিতে একটি নতুন যুগের সূচনা করবে উল্লেখ করে এরদোগান জানান,Read More


স্বীকৃতি পাচ্ছে ফিলিস্তিন!

প্রিন্স উইলিয়াম ফিলিস্তিনী অঞ্চলকে ‘দেশ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। রামাল্লায় মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে সাক্ষাতে তিনি মধ্যপ্রাচ্যের চলমান সংঘাতের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি আব্বাসকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমাকে এখানে স্বাগত জানানোর জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি অত্যন্ত আনন্দিত এই ভেবে যে, আমরা দুটি দেশ একত্রে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি এবং অতীতে শিক্ষায় ও ত্রাণের কাজে আমাদের দু দেশের মধ্যে সফলতার গল্প রচিত হয়েছে।’ পশ্চিমা দেশগুলো সাধারণত ফিলিস্তিনীকে একটি দেশ বা রাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ না করে বরং ভবিষ্যতে- তথা কথিত দুই রাষ্ট্র সমাধানে কেবল ফিলিস্তিনের সার্বভৌমত্বের পক্ষে নিজেদের সমর্থন দেয়। জাতিসঙ্ঘে ফিলিস্তিনেরRead More


এরদোগানের বিশাল বিজয় : নতুন যুগে তুরস্ক

আরো একবার রজব তাইয়েব এরদোগানের ওপর আস্থা রাখলেন তুরস্কের ভোটাররা। রোববার অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ২২ শতাংশ ভোট বেশি পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এরদোগান। একই দিন অনুষ্ঠিত পার্লামেন্ট নির্বাচনেও অর্ধেকের বেশি আসন লাভ করেছে এরদোগানের দল জাস্টিস এন্ড ডেভলপমেন্ট (একে) পার্টি। ২০০৩ সাল থেকে টানা ক্ষমতায় থাকা এরদোগানকে আরো এক মেয়াদের জন্য রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব দিলো তুর্কি ভোটাররা। ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ও সে বছর থেকে দেশটির প্রেসিডেন্ট পদে দায়িত্ব পালন করছেন। রোববারের নির্বাচনে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষিত ৯৮ শতাংশ কেন্দ্রের ফলাফলের মধ্যে প্রায় ৫৩ শতাংশ ভোট পেয়েছেন এরদোগান। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মুহারেমRead More


৭টি মসজিদ বন্ধ করে দেয়ার ঘোষণা অস্ট্রিয়ার

সাতটি মসজিদ বন্ধ ও ৬০ জন ইমামকে দেশ থেকে বহিষ্কার করার ঘোষণা দিয়েছে পূর্ব ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়া। দেশটির সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শুক্রবার অস্ট্রিয়ার কট্টর ডানপন্থী সরকারের উচ্চ পর্যায়ে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সাম্প্রতিক  বছরগুলোতে ইউরোপের অন্যান্য স্থানের মতো দেশটিতেও ইসলাম বিদ্বেষ বেশ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। শুক্রবার অস্ট্রিয়ার কট্টর ডানপন্থী সরকার জানিয়েছে, সাতটি মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে এবং ইমামদের বহিষ্কার করা হচ্ছে। কারণ তারা ‘রাজনৈতিক ইসলাম’ এবং ধর্মীয় গোষ্ঠীগুলোকে বৈদেশিক অর্থায়ন করছে। এদিকে তুরস্কের ডেইলি সাবাহ পত্রিকা জানিয়েছে, তুরস্কের ওপর ক্ষোভ থেকেই এই সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে দেশটি, কারণ যেসব ইমামদের বহিষ্কারRead More


Facebook

Likebox Slider Pro for WordPress