Main Menu

কয়েকটি প্রচলিত বদ রুসুম : আসুন পরিহার করি

 শ্বশুর বাড়ি প্রবেশের আগে নববধুর পা ধোয়ানো

কোনো কোনো এলাকায় প্রথা আছে, শ্বশুরবাড়িতে প্রথম প্রবেশের সময় ঘরের বাইরে নববধুর পা ধোয়ার আয়োজন করা হয় এবং যারা তার পা ধুয়ে দেয় তাদেরকে বখশিশ দেওয়া হয়। মনে করা হয়, এই আচার পালন ছাড়া নববধুকে ঘরে তোলা অনুচিত। এটি একটি         কু-রসম। ইসলামে যার কোনো ভিত্তি নেই।

পায়ে ময়লা বা ধুলা-বালি লাগলে তা পরিষ্কার করা যায়, কিন্তু বিনা প্রয়োজনে পা ধোয়ানোর আয়োজন সমর্থনযোগ্য নয়। উপরন্তু এতে রয়েছে নববধুর প্রতি এক ধরনের মানসিক পীড়ন, যা একজন সচেতন নারী সহজেই উপলব্ধি করতে পারেন। আর কোনো মুসলমানকে কষ্ট দেওয়া, সে পুরুষ হোক বা নারী, সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ও হারাম। সাধারণ কোনো অতিথির সাথেও এমন আচরণ করা হলে নিঃসন্দেহে তিনি অপমানবোধ করবেন। তাহলে বাড়ির বধু হিসেবে যাকে গ্রহণ করা হচ্ছে তার সাথে এই আচরণের কী অর্থ?!

কোনো মানুষকে শুধু শুধু অশূচি ও অপবিত্র মনে করার ধারণা হিন্দু-সংস্কৃতির অংশ। কিন্তু ইসলাম মানব ও মানবতাকে অনেক উঁচু মর্যাদা দিয়েছে। সত্ত্বাগতভাবে কোনো মুমিনকে অশুচি ও অপবিত্র মনে করার সুযোগ ইসলামে নেই। অতএব কোনো কুসংস্কার বা ভ্রান্ত বিশ্বাসের শিকার হয়ে নববধুর পা ধোয়ার আয়োজনও ইসলাম সমর্থন করে না। তাছাড়া শ্বশুরবাড়ির এমন কোনো আলাদা মর্যাদা বা বৈশিষ্ট্য নেই যে, সেখানে প্রবেশ করতে হলে পা ধুয়েই প্রবেশ করতে হবে।

ইসলামের পরিচ্ছন্ন আকীদায় যারা বিশ্বাস স্থাপন করেছে তাদের উচিত এই জাতীয় কু রসম পরিত্যাগ করা।

 খাওয়ার পর বরতন ধুয়ে খাওয়া কি সুন্নত?

কেউ কেউ মনে করে যে, খাওয়ার পর বরতন ধোয়া পানি পান করা সুন্নত। এই ধারণা সঠিক নয়। হাদীস ও সুন্নাহর কিতাবে এমন কোনো সুন্নতের কথা নেই। সুন্নত হল, খাওয়ার পর হাত, হাতের আঙ্গুল চেটে খাওয়া এবং বরতন ভালোভাবে মুছে খাওয়া। রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এভাবে আঙ্গুল ও বরতন ভালোভাবে পরিষ্কার করে খাওয়ার আদেশ করেছেন। (সহীহ মুসলিম, হাদীস : ২০২২)

সুতরাং আঙ্গুল ও প্লেট ভালোভাবে পরিষ্কার করে খাওয়া সুন্নত, ধুয়ে পানি পান করা সুন্নত নয়। তবে সুন্নত ও     মুস্তাহাব মনে না করে কেউ যদি প্লেট ধুয়ে পানি পান করে তাহলে এতে কোনো অসুবিধা নেই; বরং তা মুবাহ। কিন্তু একে সুন্নত বলা সঠিক নয়।

 খাওয়ার পর মুখমন্ডলে ও পায়ের তালুতে হাত মোছা কি সুন্নত?

কোনো মজলিসে দেখলাম, এক ব্যক্তি খাবারের পর অতি গুরুত্বের সাথে পায়ের তালুতে হাত মুছলেন এবং সঙ্গীকেও সুন্নত বলে এতে উৎসাহিত করলেন।

আসলে এটিও সুন্নত নয়। একে সুন্নত বলা ভুল; বরং চর্বিযুক্ত খাবারের ক্ষেত্রে হাত সাবান বা গরম পানি দ্বারা উত্তমভাবে পরিষ্কার করে রুমাল বা তোয়ালে জাতীয় কিছুতে মুছে নেওয়া উচিত। হাদীসে আছে, রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, তোমাদের মধ্যে কেউ যখন আহার করে, তখন সে যেন আঙ্গুল চেটে খাওয়ার আগে রুমালে হাত না মোছে। (মুসনাদে আহমদ ১/৩৪৬, হাদীস : ৩২৩৪)

যাই হোক, খাওয়ার পর পায়ের তালুতে হাত মোছা বা বরতন ধুয়ে পানি পান করা না-জায়েয নয়, কিন্তু একে সুন্নত বলা ভুল। কোনো কাজ বৈধ হওয়া আর সুন্নত হওয়া এক কথা নয়।

সংগ্রহ : মাসিক আল-কাউসার

Comments

comments






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Facebook

Likebox Slider Pro for WordPress